বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙায় শাস্তি দাবি 2021


 সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙায় ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন। সোমবার অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব শেখ ইউসুফ হারুনের ও সভাপতি হেলালুদ্দীন আহমদের স্বাক্ষর করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। একইসঙ্গে ভাস্কর্য ভাঙায় জড়িতদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবিও জানানো হয়েছে।


সব শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে তৎকালীন প্রশাসন সার্ভিসের সদস্যরাও মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন এবং সদ্যস্বাধীন রাষ্ট্রকে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ পুনর্গঠনের কাজে আত্মনিয়োগ করেন। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনা প্রশাসন ক্যাডার তথা জনপ্রশাসনের সব স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চেতনা ও অস্তিত্বের মর্মমূলে কুঠারাঘাতের সামিল।বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে সব শ্রেণি-পেশা-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে আপামর বাঙালি জাতি মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে এদেশের স্বাধীনতার রক্তিম সূর্য ছিনিয়ে আনে। বাংলাদেশ তথা বাঙালি জাতির অস্তিত্বের সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুই ছিলেন পথ প্রদর্শক, আলোর দিশারী ও সার্বজনীন নেতা। বাংলাদেশের অস্তিত্বের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর নাম তাই অবিচ্ছেদ্যভাবে যুক্ত।

অ্যাসোসিয়েশন মনে করে, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য চিরায়ত বাঙালি জাতির অবিনাশী চেতনার মূর্ত প্রতীক। বিভিন্ন জাতি রাষ্ট্রের সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক বিকাশের পরিচায়ক হিসেবে আধুনিক রাষ্ট্রসমূহে এমনকি অনেক মুসলিম দেশে তাদের জাতির পিতার এবং জাতীয় নেতাদের ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবন সংগ্রাম, তার ভাষণ আজ বিশ্ব ঐতিহ্যের স্মারক হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। কতিপয় দুর্বৃত্ত কর্তৃক বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে আঘাত হানার মাধ্যমে বিশ্বজনীন ঐতিহ্য ও চেতনাকে আঘাত করা হয়েছে বলে অ্যাসোসিয়েশন মনে করে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করা হয়, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গোটা জাতি ঐক্যবদ্ধ হয়ে উচ্ছ্বসিত অনুপ্রেরণায় যখন মুজিব বর্ষ পালন করছে এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনের জন্য দেশের মানুষ যখন অনির্বাণ উৎসাহে অপেক্ষমান, ভিশন-২০২১, ২০৪১ এবং ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ বাস্তবায়নের লক্ষ্য নিয়ে যখন উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে দেশ- তখন রাতের আঁধারে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার ঘটনা বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করার অপচেষ্টা মাত্র। বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন এই অপচেষ্টা রুখে দিতে বদ্ধপরিকর।

বিজ্ঞপ্তিতে শেষে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার সঙ্গে জড়িত দুষ্কৃতিকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করা হয়। এছাড়া নতুন ও অনাগত প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের মহান চেতনা ছড়িয়ে দিতে সারাদেশে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের উদ্যোগ অব্যাহত রাখার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গেল ৫ ডিসেম্বর রাতের আঁধারে কুষ্টিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙার ঘটনা ঘটে।

Post a Comment

0 Comments